• ঢাকা, বাংলাদেশ বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৪১ অপরাহ্ন

কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন ড. তাহেরের মেয়ে

রিপোর্টার নাম:
আপডেট শুক্রবার, ২৮ জুলাই, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক এস তাহের আহমেদ হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া দুই আসামির ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তার মেয়ে সেগুফতা তাবাসসুম আহমেদ। বৃহস্পতিবার রাতে ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পরই তিনি সংবাদ কর্মীদের কাছে এই প্রতিক্রিয়া পাঠান।
সেগুফতা তাবাসসুম আহমেদ বলেন, ১৭ বছর ৬ মাস, বাবাকে বাবা বলে ডাকতে পারি না, ছুঁয়ে দেখতে পারি না। এটা যে কি কষ্ট আমাদের ভাই-বোনদের বলে বুঝাতে পারবো না। আমার বাবা ড. এস তাহেরকে ২০০৬ সালে যে নির্মমভাবে নৃশংসভাবে হত্যা করে বাসার পেছনের সেফটিক ট্যাংকের মধ্যে ফেলে রাখা হয়েছিল। তার বিচার হলো, ন্যায় বিচার আমরা পেলাম। প্রথমেই আমি মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি সকল আইনজীবী যারা মামলাটি এগিয়ে নিতে সাহায্য করেছে, এটর্নি জেনারেল অফিস এবং তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তাকে। প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়াকে যারা নি:স্বার্থভাবে সহায়তা করেছে। আমরা পরিবার হিসেবে অত্যন্ত একটা সাধারণ পরিবার, বাবাকে তো আর ফেরত পাবো না। সবার কাছে দোয়া চাই।
উল্লেখ্য, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভ’ তত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. এস তাহের আহমেদ হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামির ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে। রাত ১০টা ১ মিনিটে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামির ড. মিয়া মোহাম্মদ মহিউদ্দিন এবং জাহাঙ্গীর আলমের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। #


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

এই ক্যাটাগরিতে আরো নিউজ
%d