• ঢাকা, বাংলাদেশ রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৫:০৯ অপরাহ্ন

নওগাঁয় নিয়োগ পরীক্ষার খাতা পুনঃ যাচাই বাছাইয়ের দাবীতে অভিযোগ

নওগাঁ প্রতিনিধি
সর্বশেষ: বুধবার, ৩ এপ্রিল, ২০২৪

নওগাঁর আত্রাই উপজেলার হাটকালুপাড়া দাখিল মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সুপারের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণ, দূর্ণীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে তিনটি পদে নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এই নিয়োগপ্রাপ্তদের নিয়োগ বাতিল করে নিয়োগ পরীক্ষার খাতা পুনঃ যাচাই বাছাইয়ের দাবীতে মো. আকরাম হোসেন নামের একজন নিয়োগপ্রার্থী বুধবার দুপুরে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. আজাদ আলী কবিরাজ ও সুপারিনটেনডেন্ট মো. আবুল হোসেন পরস্পর যোগসাজসে ঘুষ গ্রহণ, দূর্নীতি অর্থ আত্মসাৎ ও স্বজন প্রীতির মাধ্যমে গত শনিবার (৩০মার্চ) উপজেলার হাট কালুপাড়া গ্রামের মনির উদ্দিনের ছেলে মো. আলমগীর হোসেনকে অবৈধ ভাবে নিয়োগ দিয়েছেন।
আমার কাছ থেকে সভাপতি ও সুপারিনটেনডেন্ট ১৫ লক্ষ টাকা দাবী করে। আমি ১০ লক্ষ টাকা সভাপতি ও সুপারকে প্রদান করি এবং তাহাদের কথামত পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করি এবং আমার পরীক্ষাও ভালো হয় । কিন্তু আমাকে পরীক্ষায় পাস না করিয়ে আলমগীর হোসেনের নিকট থেকে ১৫ লক্ষ টাকা ঘুষ নিয়ে তাকে নিয়োগ দেন। আমাকে নিয়োগ না দেওয়ায় আমার টাকা সভাপতি ও সুপারের কাছে ফেরৎ চাইলে আজ নয় কাল নয় বলে টালবাহানা করে বর্তমানে বাড়ী ছাড়া অবস্থায় আছে। এমতাবস্থায় আমি এই বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানায়।
অভিযোগের ব্যাপারে জানতে মাদ্রাসার সুপার মো. আবুল হোসেনের মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি। তাই তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
এবিষয়ে জানতে চাইলে মাদ্রাসার সভাপতি আজাদ আলী কবিরাজ বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করেছে সেটা ভিত্তিহীন। শতভাগ সচ্ছতার ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।
অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. লুৎফর রহমান বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরো খবর