• ঢাকা, বাংলাদেশ রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন
নোটিশ
রাজশাহীতে আমরাই প্রথম পূর্ণঙ্গ ই-পেপারে। ভিজিট করুন epaper.rajshahisangbad.com

প্রথমবারের মতো টাইমস হায়ার এডুকেশন এশিয়া ইউনিভার্সিটি র‍্যাংকিংয়ে স্থান পেল রাবি 

রাবি প্রতিনিধি
সর্বশেষ: বুধবার, ১ মে, ২০২৪

যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা সাময়িকী ‘টাইমস হায়ার এডুকেশন’ (টিএইচই)-এর এশিয়া ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিং ২০২৪ প্রকাশিত হয়েছে। মর্যাদাপূর্ণ এ র‌্যাংকিংয়ে প্রথমবারের মতো দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকায় নাম লেখার গৌরব অর্জন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। এবারের তালিকায় রাবিসহ দেশের ২১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম এসেছে।
বুধবার (৩০ এপ্রিল) প্রতিষ্ঠানটির অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তালিকা থেকে এ তথ্য জানা গেছে। শিক্ষার মান, শিক্ষার্থী-শিক্ষকের অনুপাত, গবেষণার মান, সাইটেশন, আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীসহ কয়েকটি সূচকের ওপর ভিত্তি করে এশিয়ার ৩১টি দেশের মোট ৭৩৯টি বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে এবারের র‍্যাংকিং করেছে প্রতিষ্ঠানটি।
টাইমস হায়ার এডুকেশন প্রকাশিত বিগত সালগুলোর ‘এশিয়া ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিং’-এর  তালিকা ঘেঁটে দেখা যায়, প্রথমবারের মতো এই র‌্যাংকিংয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম উঠে এসেছে। র‌্যাংকিংয়ের তালিকায় ৪০১-৫০০ -এর মধ্যে অবস্থান করছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে যৌথভাবে তৃতীয় হয়েছে রাবি।
তালিকা ঘেঁটে আরো জানা যায়, এযাবৎ যত এশিয়া ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিং প্রকাশ করেছে তাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো হদিস পাওয়া যায়নি। ২০২৩ সালে প্রকাশিত এশিয়া ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিংয়ে দেশের ১৫টি সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় জায়গা করে নিলেও নাম আসেনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের।
তার আগে, ২০২২ সালে দেশের মোট ৬টি সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম আসলেও তালিকাভুক্ত হয়নি প্রাচ্যের ক্যামব্রিজ খ্যাত এ শিক্ষালয়ের। এছাড়া ২০২১ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত
প্রকাশিত সব র‌্যাংকিং ঘেঁটে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পাওয়া যায়নি। অর্থাৎ প্রথমবারের মতো এই র‌্যাংকিংয়ে দেশ সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকায় নাম উঠল এ বিদ্যাপীঠের।
২০২২ সালের নভেম্বরে ব্রিটিশ কাউন্সিলের আমন্ত্রণে ‘গোয়িং গ্লোবাল এশিয়া প্যাসিফিক’ কনফারেন্সে অংশ নিতে ৪ দিনের সফরে সিঙ্গাপুরে গিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার। সেখানে টাইমস হায়ার এডুকেশন-এর গবেষণা ও উন্নয়নবিষয়ক মহাব্যবস্থাপক রীথিন মালহোত্রা’র সাথে সাক্ষাত করেন তিনি। এসময় তাঁরা রাবির র‌্যাংকিং বৃদ্ধির মাধ্যমে কীভাবে একে বিশ্বমানের পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া যায় সে বিষয়ে আলোচনা করেন। ক্রমপর্যায়ে জাতীয় পর্যায়ে মানবৃদ্ধি এবং পরবর্তীতে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে রাবির র‌্যাংকিং বাড়ানোর বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে উভয় পক্ষ একমত হোন।
বছর পেরোতেই তার সুফল পেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। বিগত সকল ব্যর্থতা কাটিয়ে নিজেদের নাম লিখিয়েছে সেরাদের তালিকায়। এর আগে, টাইমস হায়ার এডুকেশন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিং ২০২৪ -এ প্রথমবারের মতো নিজেদের অবস্থান পাকাপোক্ত করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। এবার এশিয়া ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিংয়েও স্থান পেল এ বিদ্যাপীঠ।
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিস অব দ্য ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক অধ্যাপক মো. আজিজুর রহমান শামীম বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রথমবারের মতো এই র‌্যাংকিংয়ে নিজের অবস্থান অর্জন করে নিয়েছে। এটা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য অনেক বড় একটা অর্জন। আশা করি, পরবর্তীতে এই র‌্যাংকিংয়ে আমরা ডে বাই ডে উন্নতি করব, আরো ভালো অবস্থানে যাব। র‌্যাংকিংয়ে ভালো করতে যেসকল তথ্য লাগবে সেগুলো আমরা প্রতি বছরই হালনাগাদ করব।
তিনি আরো বলেন, র‌্যাংকিং নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন খুবই মনোযোগী এবং উদ্যোগী এবং আন্তরিক। এজন্য আমি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে আন্তরিক আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি এবং সেই সকল গবেষকের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই যাদের গবেষণা এই র‌্যাংকিংয়ের জন্য ভালো একটি প্রভাব আছে।
উল্লেখ্য, প্রকাশিত এ তালিকায় এশিয়ার সেরা ৩০১-৩৫০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে স্থান করে নিয়ে যৌথভাবে দেশসেরা হয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি)। এরপর ৩৫১-৪০০ -এর মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। ৪০১-৫০০ -এর মধ্যে অবস্থান করছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। আর ৫০১-৬০০ -এর মধ্যে অবস্থান করছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।
তাছাড়া তালিকায় আরও ১২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থান হলেও তাদের র‌্যাংকিং প্রকাশ করা হয়নি। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ; বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়; ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি; ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি; ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ; ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি; যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়; খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়; ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি; ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ; বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় ও ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।


আরো খবর