• ঢাকা, বাংলাদেশ শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৪:২৪ পূর্বাহ্ন
নোটিশ
রাজশাহীতে আমরাই প্রথম পূর্ণঙ্গ ই-পেপারে। ভিজিট করুন epaper.rajshahisangbad.com

বাঘায় আম বোঝায় ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দোকানে ধাক্কা : আহত ২

বাঘা প্রতিনিধি
সর্বশেষ: শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪

রাজশাহীর বাঘায় আম বোঝায় ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশের দোকান ঘরের সাথে ধাক্কা দিয়েছে । এতে দোকান ভেঙ্গে দুই জন আহত হয়েছেন । শুক্রবার (১৪ জুন) সকাল ৭ টার দিকে  উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়নের হাবাসপুর মোড়ে এ দূর্ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আহতরা হলেন  উপজেলার হাবাসপুর মোড়ের দোকানদার  আবুল হোসেনের ছেলে মাসুদ রানা(৩৩) ও পাশ্ববর্তী চারঘাট উপজেলার বড়বড়িয়া গ্রামের বিচ্ছাদ আলীর ছেলে মিজানুর রহমানকে (৩৫)। সেখান থেকে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে চারঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  ভর্তি করা হয়েছে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের  কর্তব্যরত চিকিৎসক মাসুদ রানার শরিরীক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল হাসপাতালে (রামেক) প্রেরণ করেন ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মাসুদ রানা সকালে (বাঘা- বানেশ্বর) সহা সড়কের  পাশে দোকান খুলে এক মোটরসাইকেল আরোহীর নিকটে দোকানে সামনে থাকা কনটেনার থেকে পেট্রোল বিক্রির সময় হঠাৎ একটি আম বোঝায় ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-২৪-৩৭৫২) কিছু বুঝে ওঠার আগের  নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দোকানে ধাক্কা দেন। এতে দোকানের মালিক মাসুদ রানা ট্রাকের নিচে চাপা পড়েন এবং  মোটরসাইকেল আরোহী মিজানুর ছিঁটকে সড়কে পড়ে যান।

বাঘা উপজেলার নারায়ণপুর এলাকার আম ব্যবসায়ী কুদ্দুস সরকার জানান,  ট্রাকটি চাপাই নবাবগঞ্জ  থেকে আম বোঝাই করে  ভোলা জেলায় উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে । পথিমধ্যে বাঘা উপজেলার হাবাসপুর মোড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দোকানে ধাক্কা দেয়। ঘটনার পর সেখানকার ব্যবসায়ীদের অনুরোধে  আমগুলো যেন নষ্ট না, সেখানে গিয়ে আমগুলো হেফাজত করে অন্য  একটি ট্রাকে লোড দিয়ে ভোলা জেলার আড়তে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছি ।

এ বিষয়ে আহত মাসুদ রানার বড় ভাই বাবুল হোসেন দুপুর  ৩ টায় মুঠোফোনে  যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, মাসুদকে এখন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে(রামেক) চিকিৎসাধীন অক্সিজেন দিয়ে রাখা হয়েছে। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন  তার শরিরীক অবস্থার বিষয়ে ২৪ ঘন্টা না গেলে কিছু বলা যাচ্ছে না ।

এবিষয়ে বাঘা থানার পরিদর্শক(এসআই) সাইদুল রহমান বলেন,খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে । যেহেতু ট্রাকটিতে কাঁচা আম বোঝায় ছিল, আমগুলো যাতে পচে নষ্ট না হয় সেজন্য স্থানীয় কুদ্দুস সরকার নামের এক আম ব্যবসায়ীর হেফাজতে আমগুলো দিয়ে অন্য একটি ট্রাকে লোড করে আড়তে পাঠানো হয়েছে। আর সেই ট্রাকটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে  নেওয়া হয়েছে। তবে ট্রাকের চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে।


আরো খবর