• ঢাকা, বাংলাদেশ বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ১২:৪৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
নোটিশ
রাজশাহীতে আমরাই প্রথম পূর্ণঙ্গ ই-পেপারে। ভিজিট করুন epaper.rajshahisangbad.com

বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতীয় চার নেতাকে স্মরণ

রিপোর্টার নাম:
সর্বশেষ: শুক্রবার, ৩ নভেম্বর, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

৩রা নভেম্বর জেল হত্যা দিবসে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে গভীর শোক ও বিনম্র শ্রদ্ধায় যথাযথ মর্যাদায় রাজশাহীতে শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানসহ জাতীয় চার নেতাকে স্মরণ করা হয়েছে। শুক্রবার দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগর, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবর্ক অর্পণ, জাতীয় নেতা শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামানের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ, কোরআন খতম, শোক র‌্যালি, আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল, খাবার বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়।

সকাল সাড়ে ১০টায় মহানগর আওয়ামী লীগের কুমারপাড়া দলীয় কার্যালয়ে স্বাধীনতা চত্বরে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। এরপর দলীয় কার্যালয় থেকে বের করা বিশাল শোক র‌্যালি। শোক র‌্যালিটি বিভিন্ন সড়ক ঘুরে কাদিরগঞ্জে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধীতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন, মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এরপর মাজার প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয় স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল। স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল এঁর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহ্সানুল হক পিন্টু এঁর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা। দোয়া পরিচালনা করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য প্রফেসর বারকুল্লাহ বিন দুরুল হুদা। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সদস্য বেগম আখতার জাহান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি শাহীন আকতার রেণী, নাঈমুল হুদা রানা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. আসলাম সরকার, দপ্তর সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম বুলবুল সহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে এবং ৩রা নভেম্বর কারাগারের ভেতরে জাতীয় চার নেতাকে হত্যা একইসূত্রে গাঁথা। বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলা ও জাতীয় চার নেতার হত্যা মামলার বিচারের রায় হয়েছে। রায় আংশিক কার্যকর হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইংল্যান্ড সহ বিদেশে পলাতক আসামীদের দেশে ফিরে এনে রায় কার্যকর করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে সরকার। তবে সরকারের এই চেষ্টা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে ওই সমস্ত দেশ যারা খুনীদের নানা অজুহাতে ফেরত দিতে চায় না। এই হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যের ব্যক্তি কারা ছিলেন, তাদের দেখতে চায় জাতি। হত্যাকাণ্ডের সুবিধাভোগী ও নেপথ্যের কুশীলবদের খুঁজে বের করার জন্য কমিশন গঠন এখন সময়ের দাবি।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর যোগ্য সহচর জাতীয় চার নেতা। যা ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রমাণ হয়েছে। তাঁরা বঙ্গবন্ধুর সাথে বৈঈমানি করেননি, অন্যায়ের সাথে আপোস করেননি। এই বিষয়গুলো আমাদের স্মরণ রাখতে হবে, মনে রাখতে হবে। আজকের এই দিনে আমি বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতাকে বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি।

খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত কখনো দেশের কল্যান করেনি। আগামীতেও করবে এমন আলামত নেই। বিএনপির নেতৃত্বের ঠিক নাই। তাদের নেতা কে তারা নিজেও বলতে পারে না। খালেদা জিয়া আসামী হয়ে দণ্ডিত হয়েছেন, অসুস্থ্য হয়ে আছেন। তারেক জিয়া দণ্ডিত হয়ে বিদেশে পলাতক। এই রকম একটি দল বাংলাদেশের জন্য কিছু করতে পারবে না-এটি বোঝার জন্য বিশেষজ্ঞ হতে হয় না।

জেল হত্যা দিবস স্মরণে সকাল থেকে শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামানের সমাধীতে শ্রদ্ধা জানাতে জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, প্রশাসনের কর্মকর্তা, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের ঢল নামে।

নগরীর কাদিরগঞ্জে অবস্থিত শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধীতে শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনিসুল রহমান, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার, জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ, পুলিশ সুপার মো. সাইফুর রহমান সহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।

শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধীতে আরো শ্রদ্ধা জানান ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার মনোজ কুমার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর গোলাম সাব্বির সাত্তার, এলজিইডি এর চেয়ারম্যান মো. আলি আখতার হোসেন মহানগর আওয়ামী লীগের থানা, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা, বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, প্রশাসনের কর্মকর্তা, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ।

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে জেলহত্যা দিবস পালন করা হয়। সকালে শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং দোয়া করা হয়। সকাল সাড়ে ৮ টায় শিক্ষা বোর্ড চত্বরে চেয়ারম্যান (দায়িত্বপ্রাপ্ত) ও সচিব হুমায়ূন কবীর সকল স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দকে সঙ্গে নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর মুজিব শতবর্ষ স্মারক ম্যুরালে এবং জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে সকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে চেয়ারম্যান (দায়িত্বপ্রাপ্ত) ও সচিব হুমায়ূন কবীরের সভাপতিত্বে মুজিব শতবর্ষ স্মারক ম্যুরাল চত্বরে জেলহত্যা দিবসের উপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর আরিফুল ইসলাম, কলেজ পরিদর্শক এনামুল হক ও বিদ্যালয় পরিদর্শক জিয়াউল হক। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন প্রধান মূল্যায়ন কর্মকর্তা এস.এম. গোলাম আজম।

বিএমডিএ

শুক্রবার রাজশাহী মহানগরীর কাদিরগঞ্জ এলাকায় জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এ এইচএম কামরুজ্জামানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) কর্মকর্তা কর্মচারীরা। বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ চেয়ারম্যান ও সাবেক সংসদ সদস্য বেগম আখতার জাহানের নেতৃত্বে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ জাতীয় চার নেতার জন্য দোয়া করা হয়।

এসময় উপস্থিতি ছিলেন (বিএমডিএ) অতি: প্রধান প্রকৌশলী শামসুল হোদা, অতি: প্রধান প্রকৌশলী ড. আবুল কাসেম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শরীফুল হক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শহিদুর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী সমসের আলী, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নাজিরুল ইসলাম, প্রকল্প পরিচালক রেজা মোহাম্মদ নূরে আলম, নির্বাহী প্রকৌশলী রেজাউল করিম প্রমুখ।  দোয়া পরিচালনা করেন বিএমডিএ‘র পেশ ইমাম রফিকুল ইসলাম।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন

জেল হত্যা দিবস উপলক্ষ্যে বিনম্র শ্রদ্ধায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন। দিবসটি স্মরণে সকাল ১০টা নগর ভবন চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এবং সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। নগর ভবন থেকে বের করা হয় শোক র‌্যালি। শোক র‌্যালিটি কাদিরগঞ্জে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এবং সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর,কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, কর্মচারী ইউনিয়ন। এরপর দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামাল হোসেন, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আশরাফুল ইসলাম, ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূরুজ্জামান, ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাসেল জামান, ১১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবু বাক্কার কিনু, ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন, ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন, ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুস সোবহান, ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বেলাল আহম্মেদ, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম, ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযীম, ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আরমান আলী, ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলিফ-আল-মাহামুদ লুকেন, ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আকতারুজ্জামান কোয়েল, ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান, ২৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহের হোসেন, ৩০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলাউদ্দিন, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলরবৃন্দ, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এ.বি.এম. শরীফ উদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত সচিব আল মাহমুদ রনি, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আবু সালেহ মোঃ নূর-ঈ-সাঈদ, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম, বাজেট কাম হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ শফিকুল ইসলাম খান, প্রধান প্রকৌশলী নুর ইসলাম তুষার সহ বিভিন্ন শাখার কর্মকর্তাবৃন্দ, কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আজমীর আহম্মেদ মামুনসহ কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দিবসটি স্মরণে রাসিকের কর্মসূচির মধ্যে আরো ছিল, কালোব্যাজ ধারণ, বাদ জুম্মা সোনাদিঘী জামে মসজিদসহ কর্পোরেশনের সকল ওয়ার্ডের মসজিদে বিশেষ দোয়া, সুবিধাজনক সময়ে মন্দির, গির্জা, প্যাগোডা ও অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের বিশেষ প্রার্থনা, বাদ জুম্মা শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বরে গরীব ও দুস্থ্যদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। নগর ভবনে ড্রপডাউন ব্যানার প্রদর্শন ও সামনে কালো পতাকা উত্তোলন এবং শহরের গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে এবং ৪০টি কাউন্সিলর কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার ছবিসহ শোক সম্বলিত ব্যানার প্রদর্শন ও  কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে অসহায় ও দুস্থ্যদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার বাদ জুম্মা নগরীর শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান চত্বরে আয়োজিত প্রোগ্রামে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অসহায় ও দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাসেল জামান, ৩০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলাউদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত সচিব আল মাহমুদ রনি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আ.লীগ নেতা আসাদ

রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামন আসাদ শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। ৩রা নভেম্বর জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার সকালে তিনি শহীদ কামারুজ্জামানের মাজারে গিয়ে সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, শহীদ কামারুজ্জামানসহ জাতীয় চার নেতার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

আসাদুজ্জামান আসাদ এসময় নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে যারা হত্যা করেছিলো, ৩রা নভেম্বর যারা জাতীয় চার নেতাকে কারাগারের ভেতরে হত্যা করেছিলো তাদের দোসররা এখনো সক্রিয় রয়েছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা যখন দেশকে বঙ্গবন্ধুর সপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তখন ঐসব খুনিদের দোসররা আর তাকে সহ্য করতে পারছে না। দেশজুড়ে নাশকতা ছড়াচ্ছে, মানুষ হত্যা করছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার এগিয়ে চলাকে থমকে দিয়ে দেশের অগ্রগতিকে টেনে ধরতে তৎপর সেইসব দোসররা। আজকে জেলহত্যা দিবসে আমাদের শপথ নিতে হবে খুনিচক্রের দোসরদের নাশকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকার। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের প্রতিটি কর্মীকে অতন্ত্র প্রহরী হিসেবে দায়িত্ব পালন করায় হোক আজকের অঙ্গীকার।

মাজারে শ্রদ্ধা জনানোর সময় বাঘা-চারঘাট আসনের সাবেক সংসদ সদস্য রায়হানুক হক রায়হান, প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা বদরুজ্জামান রবু মিয়া, সাবেক সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মকবুল খা, দেওপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান আক্তার, সাবেক ছাত্রনেতা মিরাজুল আলম, তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি গোলাম রাব্বানী ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ফারুক হোসেন ডাবলু, রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, রাজশাহী জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলী আজম সেন্টু, সাবেক প্রচার সম্পাদক রফিকুজ্জামান রফিক, পাকুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিরাজুল ইসলাম, চারঘাট পৌরসভার সাবেক মেয়র নার্গিস খাতুন, মোহনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা সুলতান মাস্টার, মোহনপুর উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মিলন মাস্টারসহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

রামেবি

গভীর শোক আর শ্রদ্ধায় জেল হত্যা দিবস পালন করেছেন রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (রামেবি) কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এদিন সকাল সাড়ে ১০টায় রামেবি’র কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. রুস্তম আলী আহমেদের নেতৃত্বে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নগরীর কাদিরগঞ্জ এলাকায় অবস্থিত জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতাসহ সকল শহীদের আত্বার মাগফিরাত কামনা করে ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এর আগে সকাল ৯টায় রামেবির অস্থায়ী কার্যালয় ক্যাম্পাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ এবং সকাল সাড়ে ৯টায় একটি শোক র‌্যালি করা হয়। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে রামেবির রেজিস্ট্রার (অ.দা.) ডা.মো: জাকির হোসেন খোন্দকার, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ডা. মো. আনোয়ার হাবিব, উপ-কলেজ পরিদর্শক ডা. জোহা মোহাম্মদ মেহেরওয়ার হোসেন, লিয়াজোঁ ও প্রটোকল অফিসার ইসমাঈল হোসেন, জনসংযোগ দপ্তরের সেকশন অফিসার জামাল উদ্দীন, সেকশন অফিসার মিজানুর রহমান ও সাকিল আহমেদ, সহকারী প্রোগ্রামার ফারজানা ফাইজাসহ সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

আর্ট ক্যাম্প ও চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন

জেল হত্যা দিবস স্মরণে জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ষড়ং আর্ট গ্রুপ দুই দিনব্যাপী আর্ট ক্যাম্প ও চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করে। শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নগর ভবন বঙ্গবন্ধু কর্ণার চত্বরে ষড়ং আর্ট গ্রুপ আয়োজিত ৬ষ্ঠ আর্ট ক্যাম্প ও চিত্র প্রদর্শনীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। রাসিক মেয়র মহোদয় রং তুলির আচড় দিয়ে এ প্রদর্শনীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে জাতীয় চার নেতার স্মরণে মোমবাতি প্রজ¦লন করা হয়। অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দকে উত্তরীয় পরানো হয়। উল্লেখ্য, চিত্র প্রদর্শনী ৪ঠা নভেম্বর থেকে ৭  নভেম্বর পর্যন্ত চলবে।

কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক

জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, রাজশাহী-এর উদ্যোগে ব্যাংকের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগর কার্যালয় সংলগ্ন স্বাধীনতা চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিরঞ্জন চন্দ্র দেবনাথ। পরবর্তীতে কাদিরগঞ্জে অবস্থিত জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান-এর সমাধিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ এবং বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় চার নেতার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া পাঠ করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপব্যবস্থাপনা পরিচালক আঃ রহিম, নিরীক্ষা, হিসাব ও আদায় মহাবিভাগের মহাব্যবস্থাপক মাকসুদা নাসরীন, প্রশাসন মহাবিভাগের মহাব্যবস্থাপক (চলতি দায়িত্ব) শওকত শহীদুল ইসলাম, রাজশাহী বিভাগের বিভাগীয় মহাব্যবস্থাপক আতিকুল ইসলাম প্রমুখ।

রুয়েট

জেল হত্যা দিবসে জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন রাজশাহী  প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট)। শুক্রবার সকালে শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামানের সমাধিস্থলে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম। পুষ্পস্তবক অর্পণের পর সকল শহীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন এবং শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামানসহ জাতীয় চার নেতার রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পুরকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো. কামরুজ্জামান রিপন, ইন্সটিটিউট অব ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজী (আইআইসিটি) এর পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেন, গবেষণা ও সম্প্রসারণ দপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. ফারুক হোসেন, ছাত্রকল্যাণ দপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. রবিউল আওয়াল, ইন্সটিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসুরেন্স সেলের (আইকিউএসি) পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আরিফ আহম্মদ চৌধুরী সহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, দপ্তর ও শাখা প্রধান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি

সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে নগরের কাদিরগঞ্জে শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামানের সমাধিতে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, রাজশাহী জেলা ও মহানগর এর নেতৃবৃন্দ ফুল দিয়ে  শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

নারকীয় হত্যাকাণ্ডের ইতিহাস বর্ণনা করতে গিয়ে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ কামরুজ্জামান বলেন, ৩ নভেম্বর, জেলহত্যা দিবস। জাতীয় জীবনে এক শোকাবহ দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর জাতীয় চার নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দীন আহমদ, ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী ও এ এইচ এম কামারুজ্জামান বন্দি অবস্থায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্বাধীনতা বিরোধী ঘাতক চক্রের হাতে নির্মমভাবে শাহাদত বরণ করেন।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর নির্মূল কমিটির সভাপতি আব্দুল লতিফ চঞ্চল, সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী তামিম শিরাজী,সহ -সভাপতি কল্পনা রায়, সহ- সভাপতি অঞ্জনা সরকার, দপ্তর সম্পাদক ওয়ালিউর শেখ,মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আলিমা খাতুন লিমা, সদস্য এডঃশামিম আক্তার হৃদয় জেলা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান আলী বরজাহান, জেলা সাধারণ সম্পাদক এডঃ জোছনা আরা, নারী ইউনিটের সভাপতি হালিমা কুমকুম, সাধারণ সম্পাদক সায়মা বিথী, যুব ফ্রন্টের সভাপতি মহিউদ্দিন মিটু, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ, স্টুডেন্ট ফ্রন্টের সভাপতি ইখতিয়ার প্রামাণিক, সাধারণ সম্পাদক আরাফাত হোসেন সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এলজিইডি’র প্রধান প্রকৌশলী

জেল হত্যা দিবসে জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) প্রধান প্রকৌশলী আলি আখতার হোসেন। শুক্রবার সকালে এএইচএম কামারুজ্জামানের মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন তিনি। এরপর তিনি শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামানসহ জাতীয় চার নেতার রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করেন।

এসময় তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন, এলজিইডি রাজশাহী বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী কে এম জুলফিকার আলী, এলজিইডি রাজশাহী অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী লুৎফর রহমান, এলজিইডি বগুড়া অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী গোলাম কবির, এলজিইডি পাবনা অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী  নবীউল ইসলাম, এলজিইডি রাজশাহীর নির্বাহী প্রকৌশলী নাসির উদ্দিন।

খাবার বিতরণ

জেল হত্যা দিবস উপলক্ষ্যে রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি এবং জাতীয় শ্রমিক লীগ, রাজশাহী মহানগরের উদ্যোগে গরীব ও অসহায় মানুষদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে খাবার বিতরণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।


আরো খবর