• ঢাকা, বাংলাদেশ বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৩৪ অপরাহ্ন

রাসিক নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ

রিপোর্টার নাম:
আপডেট বুধবার, ২১ জুন, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

দু’একটি কেন্দ্রে অপ্রীতিকর কিছু ঘটনা ছাড়া রাজশাহীতে শান্তিপূর্ণভাবেই ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়। সকাল থেকে বেশিরভাগ কেন্দ্রেই নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিলো বেশি। মেয়র পদের তিন প্রার্থীই ভোটের মাঠ ঘুরে সন্তোষ প্রকাশ করেন। শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট হচ্ছে বলে জানান তারা। তবে, ইভিএম এ ভোট গ্রহণে বেশী সময় লাগায় অসন্তোষ জানান সাধারণ ভোটাররা।

সকাল আটটায় ভোট গ্রহণের সময় থাকলেও প্রায় সবখানেই ভোট শুরু হয়েছে ১০/১৫ মিনিট পরে। ইভিএম মেসিন চালু হকে সময় লেগে যাওয়ায় এই বিলম্ব। এছাড়া সারাদিনই ভোটাররা অভিযোগ করেছেন ইভিএম এ ভোট গ্রহণ করতে অনেক বেশি সময় লেগে যাচ্ছে। একেক জনের ভোট নিতে ৮/১০ মিনিট পর্যন্ত সময় লেগেছে বলে তারা অভিযোগ করেন।

রাসিকের মেয়র প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে কোথাও কোন ঝামেলার ঘটনা না ঘটলেও কয়েকটি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

রাজশাহী সিটি করর্পোরেশন নির্বাচনে ৪ নং ওয়ার্ডের কেশবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই কাউন্সিলর প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম বাবু ও রুহুল আমিন টুনুর সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটে।

দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের আটকোষি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থী বেলাল আহমেদ ও মুন্তাজ আহমেদের সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। প্রথমে দুই প্রার্থীর কয়েকজন নারী কর্মীর মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। কেন্দ্রের ভেতরে প্রবেশ করাকে নিয়ে বাক বিতন্ডার এক পর্যায়ে হাতাহিতর এই ঘটনা ঘটে। কিছুক্ষন পর সেখানে দুই পক্ষের পুরুষ সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। তবে, পুলিশের কঠোর অবস্থানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

বিকেল তিনটার দিকে ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের দুই কাউন্সিলর প্রার্থী মাহাতাব উদ্দিন ও রনির সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে হাতাহাতির পরিস্থিতি তৈরী হলে পুলিশ ধাওয়া দিয় দুই পক্ষকে দুই দিকে সরিয়ে দেয়।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

এই ক্যাটাগরিতে আরো নিউজ
%d