• ঢাকা, বাংলাদেশ বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
কিছু লোক টাকা হলেই মনে করে ইংরেজিতে কথা বললেই স্মার্ট:প্রধানমন্ত্রী রুয়েটে বিনম্র শ্রদ্ধায় মহান শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ফেরার পথে আওয়ামী লীগ কর্মী খুন বাংলা ভাষাকে সর্বোচ্চ মর্যাদায় আসীন করতে হবে: রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার রাজশাহীতে সম্ভাবনাময় কর্মসংস্থানের খাত প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে চলার নামইতো সাংবাদিকতা জমকালো আয়োজনে রাজশাহী সংবাদের বর্ষপিূর্তি উদযাপন শেখ হাসিনার হাত ধরেই এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ: জাতীয় সংসদে প্রথম বক্তব্যে আসাদ শাহীন স্কুল রাজশাহী শাখার বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণ বিজয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংস্থার বার্ষিক বনভোজন ও পুরস্কার বিতরণ

সহকারী সচিব আরিফুলের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ 

রিপোর্টার নাম:
আপডেট রবিবার, ৪ জুন, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রাণালয়ের সহকারী সচিব (ড্রাফটিং) আরিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছেন রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার ভুক্তভোগী পরিবারবর্গ। গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মহানগরীর একটি রেস্তরাঁয় বিভিন্ন এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পুঠিয়া উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মুকুল।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রাণালয়ের সহকারী সচিব (ড্রাফটিং) আরিফুল ইসলাম চাকরি দেওয়ার নামে এলাকার অনেকের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেনে। পরে চাকরি দিতে না পারায় সেই টাকা চাইতে গেলে উল্টো নানান ধরনের হয়রানি ও পুলিশের ভয় দেখাচ্ছেন। এছাড়া সাব রেজিস্ট্রি অফিসের ডিড রাইটার লাইসেন্স করে দেওয়ার নামেও টাকা নিয়েছেন অনেকের কাছ থেকে। কিন্তু লাইসেন্স হয়নি কারোই, এমনকি টাকা ফেরত দেননি।

সহকারী সচিব (ড্রাফটিং) আরিফুল ইসলামের আপন ফুফাতো বোন পপি বেগম অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার ছেলেকে চাকরি দেওয়ার নামে আড়াই লাখ টাকা নিয়েছে আরিফুল। কিন্তু চাকরি তো দূরের কথা টাকাও ফেরত দেয়নি। তার কাছে টাকা ফেরত চাইতে গেলে নানান রকম টালবাহানা করে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা দিয়ে হয়রানি, ট্রাক্টর ভাড়া নিয়ে ভাড়া না দেওয়া, জোর করে পুকুর খনন, এলাকায় বাজার মূল্য থেকে বেশী দামে জমি ক্রয় করে ফসল থাকা অবস্থায় জমি দখল করে টাকা না দেওয়া; নিজের ও স্ত্রীর নামে বিভিন্ন দলিলে কোটি টাকার জমি ক্রয় করে রাজস্ব কর ফাঁকি দেওয়ার উদ্দেশ্যে ক্রয় মূল্যের চেয়ে কম দেখিয়ে দানপত্র রেজিস্ট্রি করা, বিসিআইসি সার ডিলারদের কাছে থেকে বস্তা বস্তা সার বাজার মূল্যে কিনে মজুদ করা ও পরে বেশী দামে বিক্রিসহ ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে নানান অপকর্ম করে এলাকার মানুষের উপর অত্যাচার নির্যাতন চালান আরিফুল ইসলাম। এর প্রেক্ষিতে ভূক্তভোগীরা তার বিরুদ্ধে পুঠিয়া থানায় ৪টি মামলাও দায়ের করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, পুঠিয়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আফরাফ খান ঝন্টু, আব্দুর রশিদ, নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মুকুল উদ্দিনসহ স্থানীয়রা।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রাণালয়ের সহকারী সচিব (ড্রাফটিং) আরিফুল ইসলাম বলেন, এসব অভিযোগ সব মিথ্যা। পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে তারা আমার ক্ষতির উদ্দেশ্যে এসব করছে। তারা আমাকে চাকরিচ্যুত করতে চাই। তাই আমার বিরুদ্ধে এসব করছে তারা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

এই ক্যাটাগরিতে আরো নিউজ
%d