• ঢাকা, বাংলাদেশ রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:২২ পূর্বাহ্ন
নোটিশ
রাজশাহীতে আমরাই প্রথম পূর্ণঙ্গ ই-পেপারে। ভিজিট করুন epaper.rajshahisangbad.com

সান্তাহার জংশন স্টেশনে অর্ধ-শতাধিক যাত্রী রেখেই ছেড়ে গেল বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেন

আদমদীঘি প্রতিনিধি
সর্বশেষ: সোমবার, ২২ এপ্রিল, ২০২৪

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার রেলওয়ে জংশন স্টেশনে প্রায় অর্ধ-শতাধিক যাত্রী রেখেই ছেড়ে
যায় বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেন।
সোমবার (২২ এপ্রিল) নির্ধারিত সময়ের এক ঘন্টা পর চিলাহাটি থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী বরেন্দ্র এসপ্রেস ট্রেন এসেছিল সান্তাহার জংশন স্টেশনে। ট্রেনে যাত্রীদের চাপ থাকায় ও ট্রেনটি প্রায় ১ ঘন্টা বিলম্বে আসায় প্লার্টফমে যাত্রীদের উঠা নামার জন্য ৫ মিনিট ট্রেন দাঁড়ানোর নির্ধারিত সময় থাকলেও ট্রেনটি পাঁচ মিনিট না দাঁড়ানোয় ট্রেনে যাত্রী উঠতে পারে নাই।
আনিকা তাবাসসুম নামের রাজশাহী সকরারী কলেজের এক শিক্ষার্থী বলেন, আমি রাজশাহীতে যাওয়ার জন্য বরেন্দ্র ট্রেনের টিকেট কেটে প্লার্টফর্মে অপেক্ষা করছিলাম ট্রেনের জন্য। ট্রেনটি আসার পর ট্রেনে যাত্রীদের চাপ অনেক বেশি ছিল ভেতরের যাত্রী নামা এবং নতুন যাত্রী উঠার জন্য পর্যপ্ত সময় না দিয়েই ট্রেনটি ছেড়ে দেয়। স্টেশনের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বর প্রাপ্ত ব্যক্তিগণ বিষয়টি গার্ডকে মৌখিক ভাবে ও হাত ইশারা দিয়ে জানালেও ট্রেনটি দাঁড়ায়নি।
সিরাজুল ইসলাম নামের আরেক এক যাত্রী বলেন, আমি সান্তাহার থেকে রাজশাহী যাওয়ার জন্য এক শত পচিঁশ টাকা দিয়ে বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি টিকিট কেটে ছিলাম। ট্রেনটি সান্তাহারে ৮ টা ৫০ মিনিটে আসার সময় থাকলেও ট্রেন এসেছে প্রায় ১০ টার দিকে। আর ট্রেনে আজকে প্রচুর যাত্রী ছিল। ট্রেনটি দাঁড়ানোর কিছুক্ষন পরই ছেড়ে দেয় এতে আমি যেমন ট্রেনে উঠতে পারি নাই অন্য দিকে অনেকে ট্রেন থেকে নামতেও পারে নাই। এখন রাজশাহী যাওয়ার আর কোনো ট্রেন না থাকায় অনেকটা বিপাকে পড়েছে।
চিলাহাটি এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রী রতন আলী বলেন, বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেন নির্ধারিত সময়ের এক ঘন্টা পড়ে এসেছিল। অন্যদিকে একই প্লার্টফর্মে চিলাহাটি এক্সপ্রেস ট্রেন আসার সময় হয়ে ছিল যার কারণে ট্রেনটি সীমিত সময় দাঁড়িয়ে ছেড়ে চলে যায়। ট্রেনে যাত্রীর চাপ থাকার কারণে অনেক যাত্রী নামতে এবং উঠতে পারে নাই।


আরো খবর